রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ১০:৫৫ অপরাহ্ন
Logo
শিরোনাম :
লকডাউনে মাওয়া এবং পাটুরিয়াতে ফেরি ঘাটগুলোর কি যে অবস্থা? দেশে করোনার ভারতীয় ধরণ শনাক্ত-স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আজ বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শুভ জন্মদিন ৭ মে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের দিন হিসাবে সভায় বক্তব্য রাখেন কোটালিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক আয়নাল হোসেন শেখ। ছেলের শিক্ষকের কাছে আব্রাহাম লিংকন তার চিঠিতে কি লিখেছিলেন? খালেদা জিয়াকে বিদেশে নেয়ার আবেদন করেছেনতার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার আন্জুম সুলতানা সীমা এমপি’র উদ্যোগে অসহায়, দুস্থ ও ভ্রাম্যমান মানুষের মাঝে রমজান মাসব্যাপী ইফতার বিতরণ চলমান লক ডাউন ১৬ মে পর্যন্ত আবার বাড়ানো হলো। জার্মানে নামাজের জন্য খুলে দিল গীর্জা। আজ মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিতে যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

করোনা ভাইরাসের কারণে দুই সপ্তাহের জন্য বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে যাতায়াত বন্ধ

রির্পোটারের নাম / ২৪ বার
আপডেট সময় : সোমবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২১

ওয়ার্ল্ড খবর২৪
আমাদের সবার স্মরণে থাকা উচিত, আমরা আমাদের, আমাদের পরিবার, সমাজ ও জাতিকে রক্ষা করার দ্বায়ীত্ব আমাদের সবাই।

এই মহামারী করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ১৪ দিনের জন্য বাংলাদেশ ও ভারতের সীমান্ত দিয়ে যাতায়াত বন্ধ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশের সরকার।
এই সময় স্থলপথে পণ্যবাহী যানবাহন ছাড়া সব ধরনের লোক চলাচল বন্ধ থাকবে।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন বলেন, “ভারতে যেহেতু করোনা সংক্রমণ বেড়ে গেছে। তাই আমরা চাইছি, ‌স্থলবন্দর ও সীমান্ত থেকে মানুষের যাতায়াত দুই সপ্তাহ বন্ধ রাখার। এই সময়ে মানুষের যাতায়াত বন্ধ থাকলেও পণ্যবাহী যানবাহন চলবে।”

গত বরিবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের একটি সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

সোমবার থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হতে যাচ্ছে।

ভারতের সঙ্গে বিমান চলাচল এর আগে থেকেই বন্ধ রয়েছে।

ভারতে গত তিন দিনেই প্রায় ১০ লাখ করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ ছাড়া দেশটিতে করোনাভাইরাসের একটি নতুন ধরন শনাক্ত হয়েছে বলেও বিশেষজ্ঞরা বলছেন।

ভারতে করোনাভাইরাসের অব্যাহত সংক্রমণের কারণে দুই দেশের সীমান্ত কিছুদিনের জন্য বন্ধ করে রাখার পরামর্শ দিয়েছিলেন স্বাস্থ্য বিষয়ক বিশেষজ্ঞরা।

ভারতের সাথে বাংলাদেশের ৪ হাজার কিলোমিটারেরও বেশি সীমান্ত রয়েছে।

বাংলাদেশ ও বৈশ্বিক তথ্য-উপাত্ত মূল্যায়ন করে একদল বিশ্লেষক বলেছেন, করোনাভাইরাসের ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট বা ধরন বাংলাদেশে প্রবেশ করলে পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কা আছে।

করোনাভাইরাস সম্পর্কিত বাংলাদেশ ও বৈশ্বিক তথ্য উপাত্ত, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক নানা পদক্ষেপ, ভাইরাসের বিস্তারের ধরন – এমন নানা কিছু বিশ্লেষণ করে বিশ্লেষকদের দলটি যে সম্ভাব্য চিত্র তৈরি করেছে তাতে একথা বলা হয়।

“বাংলাদেশের বিশাল সীমান্ত ভারতের সাথে। তাই আনুষ্ঠানিক যোগাযোগ যতই বন্ধ থাকুক – তাতে সেখানকার ভাইরাস আসবে না এই নিশ্চয়তা নেই” –
তাই আসুন আমরা সরকারের সকল আইন-কানুন মেনে চলি,এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রানালয়ের সকল স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলি।
কথায় নয় কাজে তা আমরা প্রমান করি।
ওয়ার্ল্ড খবর২৪
E-mail.lorencetimo@gmail.com
ভিজিট করুন:www.worldkhobor24.com


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com